চরফ্যাশনের পর্যটন স্পটগুলো জনসমাগমে মুখর

0
80

সাকিব মাহমুদ

কুকরী মুকরিসহ চরফ্যাশন ও মনপুরার আকর্ষণীয় পর্যটন স্পটগুলো জনসমাগমে আবার মুখর হয়ে উঠেছে। সরকারী প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ১৯ আগস্ট পর্যটন স্পটগুলো চালু হওয়ার সাথে সাথেই জনসমাগম বেড়ে যায়।

জ্যাকব টাওয়ারসহ ফ্যাশন স্কয়ার

সূত্র জানায়, চরফ্যাশন উপজেলার আকর্ষণীয় ও রোমাঞ্চকর পর্যটন স্পটগুলোর মধ্যে রয়েছে, জ্যাকব টাওয়ার, ফ্যাশনস্কয়ার, শেখ রাসেল বিনোদন পার্ক, বেতুয়া প্রশান্তি পার্ক, খামারবাড়ী, মায়া ব্রীজ, বেতুয়া কায়াকিং পয়েন্ট, সাম্রাজ মাৎস্য ঘাট, কুকরি মুকরি, নারিকেল বাগান, লাল কাঁকড়ার তাড়ুয়া সমুদ্র সৈকত, ঢাল চর, সোনার চর, পাতিলার চর, গহিন সমুদ্র সৈকত শিবচর (সোনা রং এর বালির ভান্ডার)্এবং মনপুরার দক্ষিণা হাওয়া সী-বিচ।

সরকারী প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ১৯ আগস্ট থেকে স্বস্থ্যবিধি মেনে এবং ৫০ ভাগ আসন খালি রেখে সারা দেশের পর্যটন স্পটগুলো খুলে দেয়ার ঘোষণা আসে গত ১২ আগস্ট। কিন্তু তার আগেই প্রাণ জুড়াতে ছুটছেন পর্যটকরা স্পটগুলোতে।

কুকরি মুকরি

এ ব্যাপারে চরফ্যাশনের পৌর মেয়ার মো: মোরশেদ, চরফ্যাশন সংবাদকে বলেন, ১৯ আগস্ট থেকে আমরা সরকারী প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে জ্যাকব টাওয়ারসহ স্থানীয় পর্যটনস্পটগুলো বিনোদন প্রেমী মানুষের জন্যে খুলে দিয়েছি। কারন কোভিড পরিস্থিতিতে মানুষ বদ্ধ ঘরে থেকে হাফিয়ে উঠেছেন।

betua
বেতুয়া প্রশান্তি পার্ক

এ ব্যাপারে কুকরি মুকরি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আবুল হাসেম মহাজন বলেন, কুকরি মুকরি, নারিকেল বাগান, তাড়ুয়া সৈকত, ঢাল চর, সোনার চর, পাতিলার চর, শিবচরসহ পর্যটন কেন্দ্রগুলো সরকারী বিধিমোতাকে ১৯ আগস্ট থেকে আবার খুলে দেয়া হয়েছে। এলাকার হোটেল মোটেল, রেস্ট হাউজগুলো ইতোমধ্যেই সরগরম হয়ে উঠেছে। এগুলোতে বুকিং বাড়ছে।

বেতুয়া কায়াকিং পয়েন্ট

এলাকার স্পীড বোট চালক কামাল জানান, কুকরি মুকরি, নারিকেল বাগান, তাড়ুয়া সমুদ্র সৈকত, ঢাল চর, সোনার চর, পাতিলার চর, শিবচরে পর্যটকদের নেয়ার জন্যে বোট চালকরা আবার কর্মস্থলে ফিরে এসেছে। ঘাটগুলো জনসমাগমে আবার রমরমা হয়ে উঠেছে।

kukri
কুকরি মুকরি, আশ্বিন মাস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here